ট্রাফিক আসলে কি কাজে লাগে
Digital Marketing

ট্রাফিক আসলে কি কাজে লাগে? কি ভাবে ট্রাফিক বেসি আনা যায়।

ট্রাফিক বলতে আমাদের কাছে একটা ধারণা আসে।একজন লোক হাতে একটা বাঁশি আর একটা সিগন্যাল  নিয়ে রাস্তায় দাঁড়ানো। কিন্তু ওয়েব সাইটের ট্রাফিক বলতে একটু ভিন্ন আঙ্গিকে বোঝানো হয়েছে ।  ওয়েবসাইটের ট্রাফিক বলতে মূলত ভিজিটরদের বোঝাচ্ছে। মূলত আপনার সাইটে কি পরিমাণ লোক প্রতিনিয়ত আসে। আপনার সাইটে থাকে, আপনার সাইট দেখে, এই বিষয়গুলো নিয়েই  ট্রাফিক ভাই দের কাজ এখানে আপনার কিছু করার দরকার নাই। তারত তাদের মত করে দেখে আর যদি আপনি কমেন্ট আফসোন রাখেন তাহলে একটা ভাল আথবা মন্দ কমেন্ট করে যেতে পারে। এটা তাদের দায়িত্ব।

 

ট্রাফিক কেন দরকার

আমরা মূলত একটা সাইট  কি উদ্দেশ্যে বানাই। কাউকে দেখানোর জন্য। নিজের আত্মতুষ্টির জন। আমি পারি এটা দেখানোর জন্য।  না সেজন্য না, আমরা একটা সাইট বানাই খুবই যত্নে, আদরে,লালন করে, ট্রাফিক ভাইদের জন্য। কি কন ভাই এত কষ্ট এর জন্য। জি ভাই এতো কষ্ট আপনার জন্য। আপনি আসবেন তাইতো এত আয়োজন। ট্রাফিক ছাড়া কোন সাইট চলতে পারে না। ট্রাফিক ছাড়া গুগল আপনাকে  রেংক দিবে না। যার সাইটে যত ট্রাফিক বেশি তাকে গুগোল মূল্যায়ন করে বেশি।

 

ট্রাফিক মূলত কেন আসে

ট্রাফিক মত একটা সাইটে আসে ইনফর্মেশন খুঁজতে। আর গুগোল এর কাজ হচ্ছে বেস্ট ইনফরমেশনটা তার ট্রাফিকের কাছে পৌঁছে দিতে। এখনো আবার  বলতে পারেন গুগোল ট্রাফিক নিয়ে কাজ করে। জি ভাই সবাই করে। গুগোল এ মিলিয়ন মিলিয়ন ট্রাফিক প্রতিনিয়ত তথ্য সন্ধান করে। আর গুগলের কাজ হচ্ছে তাদের থেকে বাছাই করে সর্বোত্তম তথ্য তার ট্রাফিক এর কাছে পৌঁছে দেওয়া।  আর ট্রাফিক মূলত আসে কিছু খোঁজার জন্য, জানার জন্যে, কেনার জন্যে, দেখার জন্য। ট্রাফিক চায় একটা সাইট থেকে তার প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে যা তার প্রয়োজন।

 

ট্রাফিক বেশি করার উপায় কি

ট্রাফিক বেশি পাবার উপায় হচ্ছে। আপনাকে সর্বপ্রথম সুন্দর ভাবে আপনার সাইটকে ডিজাইন করতে হবে। মোবাইল ফ্রেন্ডলি করতে হবে। কেননা মোবাইলে আমাদের  70 শতাংশের বেশি মানুষ মোবাইলে ওয়েবসাইট ভিজিট করে। কিছু মানুষ পেডে করে কিছু মানুষ কম্পিউটারে করে। সর্বপ্রথম আমাদেরকে দেখতে হবে আমাদের সাইটটা মোবাইল ফ্রেন্ডলি কিনা এটা একটা গুগলের ব্যাংকিং ফ্যাক্টর। আমাদের কনটেন্টগুলোকে সুন্দর ভাবে সাজাতে হবে। যাতে ডিজিটার  সহজে ইনফরমেশন গুলা পেতে পারে এইজন্য ইউজার ফ্রেন্ডলি ভাবে গড়ে তুলতে হবে আমাদের ওয়েবসাইটটা কে।

ভালো এসিও প্রয়োগ করতে হবে। যার মাধ্যমে অতি সহজে গুগলের কাছে ট্রস্ট অর্জন করতে পারা যায়। সে ব্যবস্থা করতে হবে। আর যখন আপনার সাইট গুগলের প্রথম পাতায় আসবে এক দুই  তিনের ভিতর থাকবে তখন ট্রাফিক আপনা আপনি সাইটে আসবে। তবে এখানে একটি কথা বলা প্রয়জন সেটি হচ্ছে। আপনি গুগলের প্রথম পাতায় গেলেও আপনি যদি ট্রাফিক ধরে রাখতে না পারেন তাহলে আপনি কিন্তু আপনার রেংক হারাবেনা আর আপনি রেংক হারালে আপনি আপনার ট্রাফিক হারাবে।

এখন গুগলের উপর মানুষের আঘাত বিশ্বাস তাই তারা দেখে গুলন যে পেজটা তাদের সামনে এনে দিয়েছে সেটিই হচ্ছে বেষ্ট কেননা সে লক্ষ লক্ষ সাইটের থেকে আপনাকে বেস্টা বাছাই করে দিচ্ছি। তবে ট্রাফিক যদি এসে দেখে আপনার সাইটে তেমন ভাল কিছু নাই তাহলে গুগল বেসিদিন আপনাকে তার রেংকে রখাবে না। তাই আপনার সাইটকে ইউজার ফ্রেন্ডলি করে গরে তুলতে হবে তাহলে আপনি আর বেসি বেসি করে ট্রাফিক পাবেন। এবং ভাল ভাল কন্টেন্ট দিতে হবে। পারলে ভেরাইটিজ রাখতে পারেন। ভিডিও আডিও, ইনফোগ্রাফি, ইমেজ লিস্ট দিয়ে সাজাতে পারেন যাতে আপনার ট্রাফিকের একঘেয়েমি না লাগে।

 

ট্রাফিক থাকলে কি হতে পারে?

মুল কথাই হচ্ছে ট্রাফিক দের নিয়ে। আপনার ছাইডে যদি ট্রাফিক থাকে তাহলে আপনি এডসেন্স করতে পারেন অ্যামাজন করতে পারেন  ব্লগিং করতে পারেন। অ্যাড দিতে পারেন আরো অনেক কিছু করতে পারেননি।মুল কথাই হচ্ছে ট্রাফিক। ট্রাফিক ছাড়া আমরা একে বারে আসহায় তাইত সবাই হন্যে হয়ে এই ট্রাফিক ভাইদের পিছে ছুটে বেরায়।

এতখোন ভাই আমি আপনার আপক্ষায় ছিলাম আপনি এসে আমার সাইটে ইনফরমেশন গুল দেখে উপকার পেলে সেটিই হচ্ছে আমার সবচেয় বেসি পাওয়া। আর মূলত একটি কথা মাথায় রেখে ট্রাফিক ড্রাইভ করান ভাল সেটি হচ্ছে ট্রাফিক কি চায়। তার চাওয়াটা বুঝতে পারা। তার কমেন্টের উওর দেয়া। তাকে মূল্যায়ন করা। আপনি কাউকে মূল্যায়ন করলে আপনি মূল্যায়ন আসা করেত পারেন।